ফ্যাশন

বাসায় বসে খুব সহজে আপনার চুল কালার করবেন কিভাবে ?

নারীর সৌন্দর্য প্রকাশিত হয় সুন্দর চুল এর মাধ্যমে আর তা যদি হয় বাহারি রঙ্গের বা শেডের তাহলে সেটি এক ধাপ এগিয়ে আপনার লুককে প্রতিফলিত করবে। আজকাল বিভিন্ন স্টাইল সেলুন কিংবা পার্লার এ অনেকেই চুল কালার করে থাকেন কিন্তু তা অনেকটা ব্যয়বহুল। যদি বাসায় বসেই সেই লুকটা পেতে পারেন তাহলে বেচে যাবে আপনার টাকা এবং বাড়বে অভিজ্ঞতা। চলুন দেখে আসা যাক বাসায় বসে চুল কালার করার কিছু ট্রিক –

 

১। বক্সের মডেলটিকে বিশ্বাস করবেন না

এটি নিশ্চিত যে, বক্সের সামনে হাসিখুশি নারীটিকে অনেক সুন্দর দেখাচ্ছে, কিন্তু তার চুলের রঙ কিছুটা কাল্পনিক। নিউ ইয়র্ক সিটির  Sally Hershberger Downtown salon এঁর কালারিস্ট Dana Ionato  বলেছেন , .চুলের রঙ্গ সবসময় বক্সের দেখানো রঙ্গ থেকে হাল্কা হয়। আপনি বাসায় বসে যেই রঙ্গ তা পাবেন তা অবশ্যই সেলুন থেকে এক ধাপ ডার্ক শেড হবে। কালার এঁর আরেক্টু ভাল ধারনা পেতে আপনি দেখতে পারেন বক্সের উপরের কালার শেডের যা আপনাকে শেড নিয়ে স্পষ্ট ধারনা দিবে।

 

২। হালকা বা গাঢ় কোনটা কখন?

 

স্থায়ী ডাই এঁর জন্য আপনি যেই কালারটি চাচ্ছেন তার থেকে একটু ডার্ক শেড কিনুন। সেমি পার্মানেন্ট ডাই হল পেরমানেন্ট ডাই এঁর বিকল্প । সেমি পার্মানেন্ট ডাই এ এমনিয়া বা পারক্সাইড থাকে না যার ফলে আপনাকে চুলে প্রে-মিক্সিং করার প্রয়োজন নেই এবং এঁর ক্ষেত্রে আপনাকে আপনার বাছাইকৃত কালার থেকে একটু হাল্কা কালার নিতে হবে। এটার রঙ্গ বাড়বে যতক্ষণ আপনি তা আপনার চুলে রাখবেন।

 

৩। দুইটি বক্স কিনুন

আপনার চুল আপনার কাঁধ, বা কাঁধের দৈর্ঘ্য পর্যন্ত হলে, সম্পূর্ণ কভারেজ নিশ্চিত করতে একই কালার এর দুটি বক্স ব্যবহার করুন । শুধু একটি গ্লাস বা প্লাস্টিকের বাটি মধ্যে কালার  মিশ্রিত করুন – মেটাল বক্স ব্যাবহার করলে রঙ্গে পরিবর্তন আসতে পারে।

 

 

 

৪। চুল ভাগ করে নিন

 

চুলের মাঝখান বরাবর মাথার শেষ পর্যন্ত এমন ভাবে চুলটিকে ভাগ করে নেই যাতে করে  চুলের চারভাগে বিভক্ত হয়ে যায় – দুটো কানের সামনে এবং দুইটা পিছনে। সমসময় চুলের নিচ থেকে উপরের দিকে কালার প্রয়োগ করুন।

 

৫। শ্যাম্পু ব্যবহার করা

 

আপনার চুলের শেষ প্রান্তগুলি যদি রুক্ষ হয় এবং আপনি সম্পূর্ণ চুল কালার করছেন তাহলে প্রান্তগুলিতে কালার দেওয়া থেকে বিরত থাকুন। মাথা ধোয়ার ৩ মিনিট আগে পাত্রে থাকা অবশিষ্ট কালারে কয়েক ফোটা শ্যাম্পু মিশিয়ে নিন এবং তা আপনার চুলের শেষ প্রান্তে লাগিয়ে নিন। এরপর আপনার মাথা ধুয়ে নিন

 

৬। সঠিক ফলাফল কিভাবে পাবেন

 

 

কালার করার শেষে আপনি যদি  আপনার পছন্দমত রঙ্গ না পান তাহলে একটি গভীর কন্ডিশনার প্রয়োগ করেন,  তারপর একটি প্লাস্টিক এবং গরম গামছা দিয়ে ঢেকে রাখুন। ২০ মিনিট পর( ১০ মিনিট পড়ে ড্রায়ার দিয়ে চুল শুকিয়ে নিন ) শ্যাম্পু করে নিন। এটি আপনাকে সন্তুষ্ট করতে বাধ্য।

Please follow and like us:

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *