রন্ধন

রেফ্রিজারেটরে খাওয়া সংগ্রহ করার কৌশল

রেফ্রিজারেটর ব্যবহারে আমরা অন্যতম যে সুফল ভোগ করতে চাই তা হচ্ছে খাবার সংগ্রহ। এই সুবিধাটির জন্য অনেকেরই মনে হয় তাদের কাজ অনেক সহজ হয়ে গেল। কিন্তু খাবার সংগ্রহের সঠিক কৌশলটি যদি আপনি না জানেন তাহলে খাবার ভাল থাকার সম্ভাবনাও অনেকটাই কমে যায়। এমনকি সঠিক কৌশল অবলম্বনের মাধ্যমে হয়ত খাবারগুলো কয়েকদিন বেশিও আপনি সংগ্রহ করে রাখতে পারবেন। আর এসব কৌশলগুলো হল –

 

 

 

১। কাঁচা সবজি অবশ্যই পলি ব্যাগে রাখবেন না। অনেকেই পলি ব্যাগে রাখেন তাদের জন্য বলছি এটি আপনার সবজিকে সতেজ তো রাখেই না বরং স্বাদও নষ্ট করে অনেকাংশেই। এক্ষেত্রে আপনাকে কাগজের প্যাকেটে অথবা খবরের কাগজে মুড়ে সবজি রাখতে হবে। দেখবেন মোটামুটি অনেকদিন সবজি সতেজ থাকবে।

২। ফ্রিজে যদি শাক রাখতে চান তাহলে অবশ্যই তা কেটে রাখুন। তবে যদি শাকে ভাপ দিয়ে রাখতে পারেন তাহলে তা সবচেয়ে ভাল হবে।

৩। যেকোনো ধরনের খাবার সংগ্রহের ক্ষেত্রে আলাদা বক্স বা পাত্র ব্যবহার করুন। কেননা কাঁচা খাবার রান্না করা খাবার একসাথে খোলামেলা রাখলে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হবার সম্ভাবনা থাকে।

৪। রান্না করা খাবার বেশিদিন সংগ্রহ করতে চাইলে অবশ্যই তা ডিপে বরফ করে রাখুন। তাহলে মোটামুটি অনেকদিন ভাল রাখতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে খাবার স্বাদ আর আগের মত থাকবে না। তাই চেষ্টা করুন খুব বেশিদিন না রাখার। আর ডিপফ্রিজে রাখা খাবার বেশ কিছুদিন পর বের করে খাওয়ার পর তা আবার ফ্রিজে রাখবেন না।

৪। কাঁচা মরিচ ফ্রিজে রাখতে চাইলে তার বোটা ফেলে রাখুন। তাহলে অনেকদিন ভাল থাকবে।

৫। রেফ্রিজারেটরে যা খাবারই রাখবেন না কেন চেষ্টা করবেন তা যেন খোলা না থাকে। মুখ বন্ধ করে রাখলে খাবার মোটামুটি ফ্রেশ থাকবে।

৫। ফলমূল ফ্রিজে রাখবেন না। ফ্রিজে ফলমূল রাখলে তার স্বাদ ও গুণাগুণ দুইয়েরই ক্ষতি হয়। তারপরও খুবই প্রয়োজনে রাখতে চাইলে আপনি পলি ব্যাগ ব্যবহার করতে হবে এবং অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে যেন ভেতরে কোনোভাবেই বাতাস না থাকে।

৬। বাটা যেকোনো মশলা অবশ্যই ডিপ ফ্রিজে রাখুন। তবে এজন্য আপনাকে আলাদা ছোট বক্স অথবা পলি ব্যাগ ব্যবহার করতে হবে। কেননা বাটা মশলার গন্ধ অনেক বেশি যা আপনার ফ্রিজে থাকা অন্যান্য খাবারের সাথে মিশে দুর্গন্ধের সৃষ্টি করতে পারে। বাটা মশলা ডিপ ফ্রিজে রেখে অনেকদিন খাওয়া যায়।

৭। বিস্কিট, চানাচুরের মত খাবারও আপনি চাইলে ফ্রিজে রাখতে পারবেন। ভয় পাবেন না, সবকিছুই মচমচে থাকবে। আর এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হলো এসব আপনাকে প্লাস্টিকের বক্সে রাখতে হবে।

৮। মাছ কেটে লবণ পানি দিয়ে ধুয়ে রাখুন তাহলে স্বাদের কমবেশি হবে না। আবার মাছের আঁশটে গন্ধ ছাড়াতে হলে আপনি ভিনেগার ব্যবহার করতে পারেন।

ছোটখাট কিছু কিছু কৌশল মানলে আপনার কাবার সংরক্ষণের ব্যাপারটি খুব সহজ হয়ে যাবে।

 

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *