ক্যারিয়ার

ক্যারিয়ারের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা অনিশ্চিত? দেখে নিন কিভাবে ক্যারিয়ার পরিকল্পনা করতে হয়

ক্যারিয়ারের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা অনিশ্চিত? দেখে নিন কিভাবে ক্যারিয়ার পরিকল্পনা করতে হয়

প্রতিযোগিতার এই যুগে সাফল্য লাভ করতে হলে নিজের সর্বোচ্চটা দিয়েই চেষ্টা করতে হয়। আর এক্ষেত্রে যদি আপনি যদি ক্যারিয়ারের দিক দিয়ে পিছিয়ে থাকেন বা আপনার ক্যারিয়ার পরিকল্পনা ঠিক না হয় তাহলে আপনি শত চেষ্টার পরও পিছিয়ে থাকবেন। সুষ্ঠু ক্যারিয়ার পরিকল্পনা থাকে না বলেই অনেকের হাতের কাছে সুযোগ সুবিধা থাকার পরও তারা তার সঠিক ব্যবহার করতে পারে না। নিজেকে একজন সফল মানুষ হিসেবে ভবিষ্যতে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য আপনাকে আগে থেকেই কিছু পরিকল্পনা করে রাখতে হবে এবং সেই পরিকল্পনা মোতাবেক চেষ্টাও করে যেতে হবে। আসলে ক্যারিয়ার পরিকল্পনা একবারে করে ফেলার মতো কোন বিষয় নয়। ছাত্রজীবন থেকেই শুরু করতে হয় ক্যারিয়ার পরিকল্পনা।

প্রত্যেকেরই তার ক্যারিয়ার সম্পর্কে পরিকল্পনা করে নেওয়া প্রয়োজন। সব ক্ষেত্রেই এই পরিকল্পনা আপনাকে সামনে এগিয়ে যেতে সহায়তা করবে। ক্যারিয়ার পরিকল্পনা একটি চলমান প্রক্রিয়া যা একই সাথে আপনাকে নতুন কিছু শিখতে এবং নিজেকে গড়ে তুলতে সাহায্য করবে।

ক্যারিয়ার নিয়ে পরিকল্পনা করলে নিজেকে জানা যায়, নিজের সম্ভাবনা সম্পর্কে জানা যায় এবং কোন পেশায় আপনি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন সেটি খুঁজে বের করে সেভাবে কাজ করা যায়। এছাড়াও নতুন কিছু শেখা যায় আর সোবে পেশাগত জীবনে পরিবর্তন আনা যায়।

ক্যারিয়ার পরিকল্পনা করার সময় যে বিষয়গুলোর প্রতি লক্ষ্য রাখতে হবে –

১। আপনাকে অবশ্যই আপনার লক্ষ্য স্থির করতে হবে এবং সেই লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য কাজ করতে হবেক্যারিয়ার পরিকল্পনার শুরুতেই ঠিক করতে হবে আপনি কোথা থেকে শুরু করতে চান। আর এই বিষয়টি নির্ভর করছে আপনি এখন কোথায় আছেন, আপনি নিজেকে কোথায় নিয়ে যেতে চান এবং আপনি কীভাবে সেই লক্ষ্যে পৌঁছাতে চান তার উপর।

২। আপনার ক্যারিয়ার কাজের প্রতি মনোযোগী হোন। মনে রাখবেন আপনাকে অবশ্যই আপনার ক্যারিয়ারের প্রতি ফোকাসড হতে হবে।

৩। যে ধরণের কাজ আপনার পছন্দ বা করতে ভাল লাগে সে ধরেনের কাজের জন্য পরিকল্পনা করুন তাহলে সফল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে।

৪। নিজেকে দক্ষ করে গড়ে তোলার চেষ্টা করুন। আপনার কাজের ভুলগুলো খুঁজে সমাধানের চেষ্টা করুন এতে করে আপনার দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে।

৫। নতুন কাজকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহন করুন এবং সফল না হওয়া পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে যান। এর ফলে আপনার আত্মবিশ্বাস বাড়বে এবং কাজের দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে।

৬। সফল ক্যারিয়ারের মূল শর্ত হলো নিজেকে জানা, নিজের ক্ষমতা সম্পর্কে জানা। 

৭। বিভিন্ন ধরণের পেশা সম্পর্কে ধারণা লাভ করুন এবং সেগুলো সম্পর্কে খোঁজ খবর নিন। বিভিন্ন ধরণের পেশার মধ্য থেকে যে পেশাটি আপনার আগ্রহ, যোগ্যতা, দক্ষতা সবকিছুর সাথে মিলে যায়, সে পেশাটিই আপনার বেছে নেওয়া উচিত।

৮। ক্যারিয়ারের জন্য প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ গ্রহণ বা যোগ্যতা অর্জন করুন।

আপনার স্বপ্ন বা আপনার নিজেকে গড়ে তোলার সবকিছুই সঠিকভাবে সাফল্যের দিকে নিয়ে যাওয়ার জন্য যে জিনিসটি সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন তা হলো ক্যারিয়ার পরিকল্পনা। তাই এক্ষেত্রে কোনো ধরণের সংকোচ এবং ভুল না করে ভেবে চিন্তে পরিকল্পনা অনুযায়ী সামনে এগিয়ে যাওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। 

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *