ক্যারিয়ার

নারীদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হওয়ার ৫ টি টিপসঃ

 “বিশ্বের যা কিছু মহান সৃষ্টি চির কল্যাণকর,

অর্ধেক তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তাঁর নর”

কবি নজরুল বহু বছর আগেই নারী-পুরুষ উভয়ের অবদানের কথা বলে গেছেন। বর্তমান যুগে নারীরা কিন্তু আর পিছিয়ে নেই, পুরুষের পাশাপাশি এগিয়ে চলেছে সমান তালেই। প্রতিটি নারীরই উচিত অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হওয়া যাতে করে তারা সমাজ এবং নিজের জীবনে ভালো প্রভাব ফেলতে পারে। সহজ ভাষায় অর্থনৈতিক নির্ভরশীলতা বলতে আমরা বুঝি বাবা অথবা জীবনসঙ্গীর উপর অর্থনৈতিকভাবে নির্ভরশীল না হওয়া । স্বাবলম্বী হতে হলে ছাত্রজীবন থেকেই সংকল্পবদ্ধ হয়ে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। চলুন তাহলে জেনে নেই স্বাবলম্বী  হতে হলে কি কি করা উচিতঃ 

১। ছাত্রজীবন থেকেই উপার্জন শুরু করাঃ 

স্বাবলম্বী হতে হলে আপনাকে ছাত্রজীবন থেকেই উপার্জন শুরু করা উচিত। এতে করে নিজের হাত খরছ নিজেই চালাতে পারবেন, সঞ্চয়ও করতে পারবেন এবং এর সাথে সাথে নিজের কষ্টে উপার্জিত অর্থের মূল্যও বুঝবেন। স্টুডেন্ট লাইফে অর্থ উপার্জনের সবচেয়ে কমন এবং সহজ উপায় হল টিউশনি। আপনি ইন্টারমিডিয়েট এর পর থেকেই স্টুডেন্ট পড়ান শুরু করতে পারেন। এছাড়াও বিভিন্ন স্কিল ডেভেলপমেন্ট করে ঘরে বসেই আউট সোর্সসিং এর কাজ তো আছেই। 

২। পার্ট টাইম জবঃ 

বিশ্ববিদ্যালয়ের শেষ বর্ষ থেকেই লেখা-পড়ার পাশাপাশি পার্ট টাইম চাকুরি খুঁজে নেওয়া উচিত। এতে করে কাজের দক্ষতা বাড়বে, অভিজ্ঞতা অর্জন হবে যা আপনি আপনার সিভিতে অ্যাড করতে পারবেন। এই অভিজ্ঞতাই আপনাকে গ্রাজুয়েশনের পর ভালো চাকরি পেতে সহায়তা করবে। 

৩। সঞ্চয়ী এবং মিতব্যয়ী হউনঃ 

আপনি যা উপার্জন করবেন, তার একটি বড় অংশ সঞ্চয় করতে শিখুন। প্রয়োজনের বেশি খরচ করা থেকে বিরত থাকুন। মনে রাখবেন, হিসেব করে চলা কৃপণতা নয়, বরং এতে করে আপনার সঞ্চয় রা অর্থ ভবিষ্যতে আপনারই কাজে লাগবে। এই যে, এই করনাকালে অনেকেরই চাকরি চলে গেল বা বেতন কাটা হল, এই পরিস্থিতিতে যারা শুরু থেকেই মিতব্যয়ী ছিলেন এবং অর্থ সঞ্চয় করে চলেছেন, তাদের একটু হলেও এই বিপদের দিনে উপকার হয়েছে। 

৪। গৃহিণীদের জন্য ঘরে বসেই আয়ের উৎসঃ 

আজকাল গৃহিণীরা কিন্তু ঘরে বসেই নানা ভাবে অর্থ উপার্জন করছে। এর মধ্যে সবচেয়ে অন্যতম মাধ্যমটি হল “অনলাইন বিজনেস”। ধরুন, আপনি খুব ভালো রান্না জানেন, এটিই হতে পারে আপনার আয়ের উৎস! আজকাল অনলাইন ফুড বিজনেস খুবই জনপ্রিয়। কিন্তু মনে রাখা ভাল যে, যেকোন ধরণের বিজনেস শুরু করার আগে প্রচুর মার্কেট রিসার্চ করে নিতে হবে নইলে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে। এছাড়াও বিভিন্ন স্কিল ডেভেলপমেন্টের মাধ্যমে খুব সহজেই ঘরে বসে, যে কেউই ফ্রিলেন্সিং এর কাজ করতে পারে। 

৫। সঠিক পরিকল্পনা এবং চেষ্টাঃ 

স্বাবলম্বী হওয়ার ইচ্ছা থাকলে সঠিক পরিকল্পনা করতে হবে এবং সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। পড়াশোনার পাশাপাশি স্কিল ডেভেলপমেন্টের দিকে নজর দিতে হবে এবং স্মার্ট ক্যারিয়ার প্ল্যানিং করতে হবে।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *