জীবন ধারা

সবসময় টেনশনে ভুগেন? জেনে নিন কিভাবে দূর করবেন

টেনশন শব্দটির সাথে আমরা সবাই কম বেশি পরিচিত। অনেকেই আছেন যাদের দুশ্চিন্তার পরিমাণ এতই বেশি থাকে যে তা তাদের শরীরের উপর চাপ ফেলে। আর টেনশনের ফল কখনোই ভাল হয় না। তাই সবারই উচিত যতটা সম্ভব নিজেকে চিন্তামুক্ত রাখা।

কিছু দিকে একটু সচেতন হলে বা লক্ষ্য রাখলেই আপনি নিজেকে টেনশন ফ্রি রাখতে পারবেন। যেমন –

১। যে কাজটি আপনাকে আনন্দ দেয় সে সকল কাজ বেশি বেশি করার চেষ্টা করুন। এতে করে আপনার মানসিক চাপ যেমন কমবে তেমনি আপনার ভালও লাগবে।

২। পর্যাপ্ত পরিমাণে বিশ্রাম নিন। আবার আপনি চাইলে মেডিটেশন করতে পারেন। মেডিটেশন আপনাকে টেনশন ফ্রি থাকতে সাহায্য করবে এবং মানসিকভাবেও আপনাকে উৎফুল্ল রাখবে।

৩। সবসময় নিজেকে কাজে ব্যস্ত না রেখে মাঝে মাঝে খোলামেলা সুন্দর পরিবেশে ঘুরে আসুন। এতে করে আপনার মন যেমন ভাল লাগবে তেমনি আপনার সকল দুশ্চিতাও কমবে। নিজেকে অনেকটাই হালকা লাগবে। পরিবারের সবার সাথে বেশি বেশি করে ঘুরে বেড়াবেন। এতে করে পরিবারকে যেমন সময় দেওয়া হবে তেমনি আপনার নিজেরও ভাল লাগবে।

 

 

 

৪। বন্ধুদের সাথে সময় কাটাতে পারেন। কেননা আমরা যখন বন্ধুদের সাথে সময় কাটাই বা আড্ডা দেই তখন আমরা নিজেদেরকে সব দুশ্চিন্তা থেকে দূরে রেখে প্রাণ খুলে হাসতে পারি। প্রাণ খুলে হাসা দুশ্চিন্তা বা টেনশন কমাতে অনেক কার্যকরী ভূমিকা রাখে। আবার যেকোনো সমস্যার কথা মন খুলে কাছের বন্ধুটিকে বলা যায়। এতে করে আপনার মানসিক চাপও কমবে।

৫। ঘন ঘন চা, কফি খাবেন না। কেননা টেনশন কমাতে চাইলে ক্যাফেইন নেওয়া কমিয়ে দিতে হবে। ক্যাফেইন আপনার মানসিক চাপ বাড়ায় এমন সব হরমোনের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়।

৬। গল্পের বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। গল্পের বই আপনার স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করবে। আবার যেকোনো দুশ্চিন্তা থেকেও দূরে রাখবে।

৭। বডি ম্যাসাজ বা বডি স্পা, হেয়ার অয়েল ম্যাসাজ, ফুট ম্যাসাজ আপনাকে অনেকটাই রিলেক্সড করবে। তাই আপনি চাইলে আপনার সুবিধামত মাঝে মাঝে এসব করাতে পারেন।

৮। অ্যাভাকাডো ফল খেতে পারেন। এই ফলে থাকা ফ্যাট ও পটাশিয়াম আপনার উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করবে।

৯। সঠিক ডায়েট প্লান করুন। কেননা এমন অনেক খাবার আছে যা খেলে আপনার মানসিক চাপ কমবে। আপনি অনেকটাই রিলেক্সড হবেন। তাই খাবারের প্রতি বিশেষ নজর দেওয়া উচিত।

১০। মদ্যপান করা থেকে বিরত থাকুন। কেননা অ্যালকোহল আপনার রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয়।

আপনি সহজ কিছু মেনে চললে আর বিশেষ কিছু দিকে লক্ষ্য রাখলেই যেকোনো চিন্তা দুশ্চিন্তায় রূপ নেবে না। আর সবসময় আপনি টেনশনেও ভুগবেন না। টেনশনের ক্ষতিকর দিকগুলো জেনে নিজেকে টেনশন থেকে দূরে রাখতে চেষ্টা করুন।

Please follow and like us:

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *