ইন্টেরিওর জীবন ধারা

৩০ মিনিটে সম্পূর্ণ বাসা গুছিয়ে নিন

মানুষের পরম শান্তির জায়গা তার আপন গৃহ বা বাসা। আর নিজের বাসাটি যদি হয় সাজানো গোছানো তবে মানসিক তৃপ্তি পাওয়া যায়। অনেকেই মনে করেন বাসা গোছানোর মতো ঝামেলার কাজ আর নেই। তবে বাসা গোছানোর কিছু সহজ উপায় জানা থাকলে কাজটা আর ঝামেলার মনে হবে না। আর যদি সম্পূর্ণ বাসাই আপনি মাত্রও ৩০ মিনিটে গোছাতে পারেন তাহলে সেটাকে শুধু কম ঝামেলার বললে ভুল হবে। সেটা অনেকটাই স্বস্তিকর।
সম্পূর্ণ বাসা গোছানোর সহজ উপায়গুলো হতে পারে –
১। ঘরে ব্যবহার করার মতো ড্রয়ারগুলোকে যদি আরো ছোট ছোট ভাগে ভাগ করে নিন তাহলে অনেক জিনিস খুব সহজেই দ্রুত আলাদা করে রাখতে পারবেন। এতে জিনিসপত্র যেমন গোছানো থাকবে তেমনি দরকারের সময় সহজেই পাওয়া যাবে।

 

২। ঘরে সবসময় তার টার পেঁচিয়ে ঝটলার মত হয়ে থাকে। এই তারগুলোকে গুছিয়ে রাখলে দেখতে যেমন ভালো লাগবে তেমনি সহজে জায়গাটা পরিষ্কারও করা যাবে। বড় তারগুলোকে খুব দ্রুত গোল করে গুছিয়ে বেঁধে নিতে পারেন এবং ছোট তারগুলোকে পিন দিয়ে আটকে রাখতে পারেন। তখন বাসাটাকে প্রায় অর্ধেকই গোছানো হয়ে যাবে।

৩। রান্নাঘরের শেলফগুলোতে প্রত্যেকটা মশলা আলাদা পাত্রে রাখলে দেখতে অগোছালো লাগবে না। আর শেলফগুলো যদি ঢেকে দেওয়ার ব্যবস্থা থাকে তবে ব্যস্ততার সময় দ্রুত ভেতরে রেখে রান্নাঘরটা পরিষ্কার করতে পারবেন।
৪। ঘরে বেশি বেশি শেলফ বানিয়ে নিন এতে করে জিনিসপত্র গোছানো আরো সহজ ও দ্রত হবে।

৫। শোবার ঘরের আলমারির ভেতরের জায়গা আলাদা আলাদা পার্ট করে ফেললে সুবিধামত প্রয়োজনীয় জিনিস আলাদা করে রাখতে পারবেন। এতে করে সবকিছু সুন্দর করে সাজানোও থাকবে আর গোছানোর কাজটাও দ্রুত হবে। তখন পোশাকগুলো দ্রুতই গুছিয়ে রাখতে পারবেন। শেলফগুলো লন্ড্রির জিনিসপত্র রাখার জন্যও ব্যবহার করা যেতে পারে।
৬। বেসিনের নিচে কিছু বক্স করার ব্যবস্থা করুন। এগুলোতে পরিষ্কারক দ্রবাদি রাখাতে পারবেন যা সহজে নজরেও আসবে না এবং রান্নাঘরের শোভা বাড়বে।
৭। বসার ঘরে কার্পেট ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে খুব তাড়াহুড়া করার সময় ঘরের মেঝে মোছার প্রয়োজন হবে না। আপনি ব্রাশ দিয়ে টেনেই বা আধুনিক বিভিন্ন ইলেকট্রিক যন্ত্রের দ্বারা কার্পেটটি দ্রুত পরিষ্কার করে নিতে পারবেন।

৮। আপনার জুতো রাখার জন্য এমন একটা শেলফ ব্যবহার করুন যা ঢেকে রাখার ব্যবস্থা থাকবে। তাহলে আপনার সারা ঘরের এখানে সেখানে জুতোগুলো অগোছালো ভাবে রাখতে হবে না।
ঘর গোছানোটা মূলত একটা শৈল্পিক ব্যাপার এখানে কিছু উপায় অবলম্বন করলে কাজটা যেমন সহজ হয় এবং তেমনি সময়ও কম লাগে।

Please follow and like us:

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *